অনলাইন ৫টি কাজ যা ফুলটাইম করতে পারবেন । Online 5 Jobs

3 comments

আপনি এখন ঘরে বসেই বিভিন্ন কাজ করে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। আমরা অনেকেই এখন এই অনলাইন আয় সম্পর্কে জানি। কিন্তু সবাই মনে করে এটা শুধুমাত্র পার্টটাইম কাজের জন্য। এর মাধ্যমে সবসময় কোনো ফুলটাইম ইনকাম বা চাকরি পাওয়া যায় না। এটি একটি ভুল ধারণা।

বর্তমানে আমরা প্রযুক্তি ছাড়া বাঁচতে পারি না। আমরা এখন অনলাইনে আমাদের সমস্ত শারীরিক কাজ করতে পারি। যেমন অনলাইনে শিক্ষাদান, পণ্য বিক্রয়, পৃষ্ঠা ব্যবস্থাপনা, ট্রান্সক্রিপশন ইত্যাদি। আপনি চাকরির পোর্টালে অনুসন্ধান করে এই কাজগুলি খুঁজে পেতে পারেন। এখানে বিভিন্ন কোম্পানি তাদের অনলাইন কাজের জন্য পার্টটাইম এবং ফুলটাইম কর্মী নিয়োগ করে।


আপনি যদি এই সংস্থাগুলিতে চাকরি পেতে চান তবে আপনাকে তাদের চাকরির সাইটগুলি অনুসন্ধান করতে হবে এবং তাদের পোস্ট অনুসারে আবেদন করতে হবে। প্রিয় পাঠক, আজকের পোস্টে আমরা কিছু অনলাইন জব নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব যেগুলো আপনি ফুলটাইম জব হিসেবে করতে পারেন। দেরি না করে আলোচনা শুরু করা যাক।

5টি ফুল টাইম অনলাইন চাকরি সম্পর্কে আরও জানুন:


1. Product Resale

বিভিন্ন কোম্পানি অনলাইনে তাদের পণ্যের বিজ্ঞাপন দেয়। তারা তাদের পণ্য বিক্রির জন্য বিভিন্ন লোক নিয়োগ করে। আপনি বিভিন্ন বিক্রয় গ্রুপ, বিভিন্ন ব্যক্তি, আপনার পরিচিত বা অপরিচিতদের কাছে পণ্যটির বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।

আপনি ক্রয় মূল্যের চেয়ে বেশি দামে বিক্রয়ের জন্য পোস্ট করতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি 500 টাকায় একটি পণ্য 800 টাকায় বিক্রি করেন, তাহলে আপনি অতিরিক্ত 100 টাকা লাভ পাবেন। ডেলিভারি চার্জও কোম্পানি বহন করবে।

অনেকেই এখন অনলাইনে এই কাজ করে প্রচুর অর্থ উপার্জন করছেন। সবাই এখন অনলাইনে মানসম্পন্ন পণ্য কিনতে আগ্রহী। তাই ফুলটাইম জব হিসেবে কাজটি করতে পারেন।

প্রতি মাসে লাভ হবে 20,000-250,000 টাকা। তবে, আপনার বিক্রয় দক্ষতা, পণ্য বা পরিষেবার ছবি পোস্টের ধরন, কোন গ্রুপ বা লোকেরা সেগুলি বিক্রি করার চেষ্টা করছে তার উপর নির্ভর করে আয়ের পরিমাণ কম হবে। যেকোন কাজে বেশি আয় করতে চাইলে আরও পরিশ্রম করতে হবে।


2. Virtual Assistant

বিভিন্ন অনলাইন পণ্য বা পরিষেবা সংস্থাগুলি তাদের অনলাইন কাজগুলি সম্পাদন করার জন্য খণ্ডকালীন বা ফুল-টাইম কর্মচারী নিয়োগ করে। এখানে আপনি কোম্পানির বিভিন্ন পণ্য ও পরিষেবার জন্য কন্টেন্ট লেখা, বিভিন্ন ব্লগ লেখা, গ্রাহকের বার্তার উত্তর দেওয়া, তাদের অভিযোগের সমাধান, পেজ শেয়ারিং, প্রচার, মন্তব্যের উত্তর দেওয়া, ইমেলের উত্তর দেওয়া ইত্যাদি পাবেন।

এই কাজগুলো করার জন্য কোনো পূর্ব অভিজ্ঞতার প্রয়োজন নেই। ইন্টারনেট সম্পর্কে প্রাথমিক জ্ঞান থাকলে এবং ইংরেজি জানা থাকলে কাজ করা সহজ হবে। প্রতি মাসে 15000 টাকা আয় করা সম্ভব। আপনি যদি চান তবে আপনি দুটি সাইটের কাজ একসাথে নিতে পারেন, যেহেতু আপনাকে শারীরিকভাবে উপস্থিত থাকতে হবে না।

আপনি ফ্রিল্যান্সার মার্কেটপ্লেসে এই কাজগুলো পাবেন। আপনি Fiverr, Upwork এ অনুসন্ধান করে কাজ খুঁজে পেতে পারেন।


3. Transcription

বিভিন্ন সিনেমা, সিরিয়াল বা অন্যান্য ভিডিওর জন্য সাবটাইটেল তৈরির কাজকে ট্রান্সক্রিপশন বলা হয়। আপনাকে যেকোনো অডিও বা ভিডিও দেখতে হবে এবং এটিকে ভাষার সাথে পাঠ্যে রূপান্তর করতে হবে, যা সিনেমা, সিরিয়াল বা বিভিন্ন ভিডিওর সাবটাইটেল হিসেবে ব্যবহার করা হবে। অনেক কোম্পানি আছে যারা বিভিন্ন লোকের সহায়তায় এই কাজটি করে থাকে।

আপনি সিনেমা সম্পর্কিত সাইট, মার্কেটপ্লেস এবং ট্রান্সক্রিপ্টগুলিতে এই সমস্ত চাকরির অফারগুলি পাবেন। এগুলোর জন্য আবেদন করুন। প্রতি ঘন্টায় 10-15 ডলার আয় করতে পারবেন। অথবা আপনি একটি বড় মাসিক পরিমাণ উপার্জন করতে পারেন।


4. Content Writer

বিভিন্ন কোম্পানি তাদের ওয়েবসাইটের জন্য বিভিন্ন আকর্ষণীয় সামগ্রী তৈরি করে। আর এগুলো লেখার জন্য তারা কনটেন্ট রাইটার হিসেবে বিভিন্ন লোককে নিয়োগ করে। বিষয়বস্তু লেখকরা কোম্পানির পণ্য এবং পরিষেবা সম্পর্কে লিখে কাজ করে, যা গ্রাহকদের পণ্য এবং পরিষেবা কিনতে আগ্রহী করে তুলবে।

এছাড়াও সাইটে অনলাইন নিউজ, রিভিউ, অনুবাদ ইত্যাদি লিখে প্রচুর অর্থ উপার্জন করা সম্ভব। তবে আপনাকে লিখতে ভালো হতে হবে, ইংরেজিতে পারদর্শী হতে হবে। তাহলে আপনি সহজেই প্রতি ঘন্টায় 10 ডলার আয় করতে পারবেন।

এই কাজগুলি পেতে আপনাকে বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল অনুসন্ধান করতে হবে বা ফ্রিল্যান্সার মার্কেটপ্লেসে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে এবং বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী আবেদন করতে হবে।


5. Online Tutor

এখন আর বিদেশী গৃহশিক্ষকের কাছে কিছু শিখতে বিদেশে যেতে হবে না। অনলাইনে যেকোনো দেশের যেকোনো বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিতে পারেন। আপনি যদি কোনো বিষয়ে দক্ষ হন এবং আপনার শেখানোর অভিজ্ঞতা থাকে, তাহলে আপনার নিজের শেখানোর ভিডিও তৈরি করুন এবং একটি অর্থপ্রদানের কোর্স শুরু করুন।

আপনি বিনামূল্যে এই ভিডিও বিক্রি করতে পারেন. যত বেশি শিক্ষার্থী ক্লাস নেয় বা ভিডিও কিনবে, তত বেশি আপনি উপার্জন করতে পারবেন। আপনার শেখানোর ক্ষমতা ভাল হলে, আপনি অনেক শিক্ষার্থী অনলাইনে ক্লাস করতে পারবেন। ফলস্বরূপ, আপনি প্রতি মাসে প্রচুর অর্থ উপার্জনের সুযোগ পাবেন, যা আপনাকে ফুল-টাইম চাকরির সমান সুবিধা দেবে।


উপসংহার

এখন শুধু পার্ট টাইম জব করেই নয়, অনলাইন জবের মাধ্যমে ফুলটাইম জব করেও নিজের ক্যারিয়ার গড়ে তোলা সম্ভব। সীমিত চাকরির বাজার দেখে নিরুৎসাহিত হবেন না, আপনার যদি অনলাইন ক্যারিয়ারে কিছু প্রাথমিক জ্ঞান, যোগাযোগ দক্ষতা, ইংরেজিতে কথা বলা এবং লেখার দক্ষতা, ইন্টারনেট সম্পর্কে জ্ঞান থাকে, তাহলে প্রতি মাসে এত আয় করা খুব সহজ যা বা এর সমান। আরো যেকোনো বড় কোম্পানির চাকরির আয়ের চেয়ে।

আপনি যদি অনলাইন চাকরিতে ক্যারিয়ার গড়তে চান তবে আজই অনুসন্ধান করুন এবং একজন চাকরির সমর্থক হন


ব্র‍্যান্ড প্রোমোটিং কি? অনলাইন ব্র‍্যান্ড প্রোমোটার হবেন কিভাবে? Brand Promoter

3 comments

বর্তমানে কাজের ক্ষেত্র অনেক বিস্তৃত হচ্ছে। যেখানে আগে পণ্য এবং পরিষেবাগুলি কেবল দোকান বা বাজারে পাওয়া যেত, এখন ইন্টারনেটের যুগে সেগুলি অনলাইনে কেনা সম্ভব।

দোকানে গেলে দোকানদার বা সেলসম্যান আমাদের পণ্য, পণ্যের গুণমান, মূল্য, পণ্যের গুণমান, পণ্যের রঙ, কীভাবে পরবেন, কে ভালো পরবে ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত জানান।

কিন্তু দোকানে গেলে একটা সমস্যা হয়, অনেক সময় অনেক কিছু দেখতে ভালো লাগে না, কিন্তু সেলসম্যানরা অনেক পরিশ্রম করেছে বলেই আমরা পণ্যটি কিনেছি। অনলাইন ব্র্যান্ড প্রোমোটাররা এই সমস্যা কাটিয়ে উঠেছে।


ব্যান্ড প্রচার কি?

ব্র্যান্ড প্রচার হল একটি পণ্য বা পরিষেবার বিপণন। এবং ব্র্যান্ড প্রোমোটার যারা পণ্যের অনলাইন প্রচার করতে আসে, পণ্যের গুণমান, দাম, রঙ, সমন্বয় ইত্যাদি।

আপনি যদি এখানে পণ্যটি পছন্দ করেন তবেই আপনাকে অর্ডারটি নিশ্চিত করতে হবে, অন্যথায় আপনি অনেক পণ্য দেখেছেন এবং কীভাবে তা নিয়ে চিন্তা করতে হবে না। একজন ব্র্যান্ড প্রোমোটারের কাজ হল তাদের প্রতিষ্ঠানের পণ্য বা পরিষেবা বিক্রির উদ্দেশ্য সরাসরি উপস্থাপন করা। সেইসাথে প্রোডাক্টের যাবতীয় তথ্য প্রদান করে।

লাইভ চলাকালীন মন্তব্য দেখে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। যাতে ক্রেতা দোকানে গিয়ে পণ্য দেখতে পারেন। একটি ব্র্যান্ড প্রবর্তক কি? এখন আমরা শিখব কিভাবে একজন ব্র্যান্ড প্রোমোটার হতে হয়। প্রিয় পাঠক, জেনে নিন।

একটি ব্র্যান্ড প্রবর্তক কিভাবে হতে শিখুন


1. পণ্য সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা

আপনি যখন এটি ভাল জানেন তখনই আপনি অন্যদের বলতে পারেন। তাই পণ্যের প্রচার করার আগে পণ্যটি ভালো করে জেনে নিন।

যাতে আপনি পণ্য সম্পর্কে সরাসরি বিস্তারিত বলতে পারেন। কারণ লাইভ মন্তব্য আসলে আপনাকে পণ্য সম্পর্কে অনেক কিছু সুন্দরভাবে বলে।


2. চটপটে এবং স্মার্ট হতে হবে

আপনি অন্য লোকেদের প্রতি যে সহায়তা প্রদান করেন তার সাথে আপনাকে আরও বৈষম্যমূলক হতে হবে। কারণ একই সাথে আপনাকে দর্শকদের স্বাগত জানাতে হবে, তাদের সাথে কথা বলতে হবে, পণ্য দেখাতে হবে, মন্তব্যের জবাব দিতে হবে এবং পণ্যটি দেখাতে হবে।

সুতরাং আপনি যদি ধীর হন তবে আপনি লাইভের অল্প সময়ে এত কিছু করতে পারবেন না। আর অবশ্যই সবার সামনে নিজেকে স্মার্টলি উপস্থাপন করতে হবে। স্বাভাবিকভাবে বা মৌখিকভাবে, আচরণে জড়তা থাকলে, অন্যরা আপনাকে লাইভ দেখার সময় ব্যয় করবে না।


3. সুন্দরভাবে কথা বলতে হবে

আপনি যদি কথাবার্তায় সাবলীল না হন, তাহলে পণ্য সম্পর্কে এত কিছু বলা আপনার পক্ষে সম্ভব হবে না, এবং আপনি এত কিছু বললেও দর্শক বুঝতে পারবেন না।

তাই আপনাকে বক্তৃতা দিতে হবে। পণ্যের গুণগত মান, দাম, মন্তব্যের উত্তর, গল্প সব মিলিয়ে দর্শকদের সঙ্গে সমানভাবে চলতে হবে।


4. নম্র হন

অনেক ব্র্যান্ড প্রবর্তক বুঝতে পারেন না যে তাদের পণ্যের প্রচারে তাদের বিনয়ী হতে হবে। কারণ পণ্য কেনার ক্ষেত্রে লোকেরা প্রশ্ন করবে, অনেক সময় তারা আরও অনেক কিছু বলতে পারে, তবে এটি বিনয়ের সাথে পরিচালনা করতে হবে।

আপনি যত নম্র হবেন, তত জনপ্রিয় হবেন। সবাই আপনার কাছ থেকে পণ্য কিনবে। অথবা আপনি প্রচারিত ব্র্যান্ড থেকে কিনুন।


5. নেতিবাচক মন্তব্য 

সব মানুষ এক নয়। সবাই আপনাকে একরকম ভাববে না। আপনি ব্যক্তিগত মেকআপ, আচরণ, পণ্য বা অভিব্যক্তি নিয়ে ট্রলও নিতে পারেন। যতটা সম্ভব এটির প্রতিক্রিয়া এড়িয়ে চলুন। একটি ভাল মন্তব্য উত্তর.

এবং যদি আপনাকে একটি মন্তব্যের উত্তর দিতে হয়, বিনয়ের সাথে ব্যাখ্যা করুন। যারা ট্রল বা গুন্ডামি স্বীকার করে প্রতিক্রিয়া জানায় তাদের জন্য ব্র্যান্ড প্রবর্তকদের নাম দেওয়া যাবে না। কারণ প্রচার করা মানে শুধু পণ্য আনা নয়, পণ্য সম্পর্কে সব কিছু বলা, ক্রেতাদের নিজস্ব ইমেজ এক্সপ্রেশন দিয়ে পণ্যের প্রতি আগ্রহী করে তোলা।

আপনি যদি গুন্ডামি স্বীকার করেন এবং নীরব থাকেন, তাহলে দর্শকরা আপনাকে সাড়া দেবে এবং আপনার জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকবে। আপনি অন্যান্য কোম্পানির মাধ্যমে ব্র্যান্ড প্রচারের জন্য অফারও পাবেন। এটি আপনাকে প্রতি মাসে প্রচুর অর্থ উপার্জনের সুযোগ দেবে।


6. সুস্বাদু সজ্জা

আপনি যদি ব্র্যান্ডের প্রচারক হতে চান তবে আপনার কাছে রুচিশীল পোশাক এবং সাজসজ্জা থাকতে হবে। আপনি এটা আকর্ষণীয় পাবেন.

মানুষ সবসময় সুন্দর মানুষ হতে বা সবকিছু সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতে পছন্দ করে। আপনি সুন্দর হন বা না হন তাতে কিছু যায় আসে না, আপনার উপস্থাপনা সুন্দর।


উপসংহার

অনলাইনে ব্র্যান্ড প্রমোটর হওয়া মানে পণ্য বিক্রি সংক্রান্ত যাবতীয় কাজ করা। লোকেরা তখনই অনলাইনে পণ্য কিনতে আগ্রহী যখন তারা পণ্যটি ভালভাবে জানে। আর সেটাই ব্র্যান্ড প্রোমোটারদের কাজ।

আপনি যদি আপনার প্রতিষ্ঠানের ব্র্যান্ডকে ভালোভাবে প্রচার করতে পারেন, তাহলে আপনি অন্যান্য প্রতিষ্ঠান বা অনলাইন শপ থেকেও অনেক অফার পাবেন। আপনি যদি পরিশ্রমী এবং নম্র হন, ব্র্যান্ড প্রচার একটি খুব লাভজনক পেশা হতে পারে।

প্রিয় পাঠক, আমি আশা করি এই পোস্টটি আপনার জন্য দরকারী হবে। যদি আপনার কোন মন্তব্য বা প্রশ্ন থাকে, তাহলে নির্দ্বিধায় আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আমরা অবশ্যই তথ্য দিয়ে আপনাকে সাহায্য করার চেষ্টা করব। আজকের মত এখানেই শেষ করছি। ধন্যবাদ সবাইকে |

অনলাইন বিজনেসে ব্যর্থ হচ্ছেন? Success Online Business Tips

2 comments

ব্যবসায়িক দৃষ্টিভঙ্গি বদলেছে। এখন ব্যবসা মানে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, কোম্পানি বা দোকান থাকা নয়। এখন আপনি ইন্টারনেটের সাহায্যে ঘরে বসে ব্যবসা করতে পারেন। সামান্য পুঁজিতে কোনো প্রতিষ্ঠান বা দোকান ছাড়াই।

এছাড়াও আপনি আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বা দোকান বা কোম্পানির প্রচার, বিপণনের জন্য অনলাইন পেজ বা গ্রুপের সাহায্য নিতে পারেন। আপনার যদি একটি অনলাইন ব্যবসা থাকে তবে এটিকে উন্নত করা অবশ্যই আপনার প্রধান লক্ষ্য।

কিন্তু আপনি যদি উন্নতি করতে না জানেন তবে আপনি অনলাইন ব্যবসায় সফল হবেন না। অনেকেই এখন অনলাইন ব্যবসার সাথে জড়িত। প্রতিদিন অনেকেই অনলাইনে নতুন ব্যবসা শুরু করছেন। কিন্তু সবাই সফলতার মুখ দেখে না।

আপনি যে ধরণের পণ্য বা পরিষেবা দিয়ে আপনার ব্যবসা শুরু করেন না কেন, সাফল্যের জন্য আপনার কিছু কৌশল থাকতে হবে। তাহলে অসংখ্য অনলাইন ব্যবসার ভিড়ে আপনি নিজের পরিচয় তৈরি করতে পারবেন।

প্রিয় পাঠক, আজ আমরা অনলাইন ব্যবসায় সাফল্যের জন্য কিছু অদম্য কৌশল নিয়ে এসেছি। চলুন জেনে নেওয়া যাক কৌশলগুলো সম্পর্কে।


অনলাইন ব্যবসা সাফল্যের জন্য টিপস

1. পেজ বুস্ট করুন/Page Boost

যে পণ্য বা পরিষেবাটি অনলাইন ব্যবসা শুরু করেছে তার নাম দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পেজ খুলুন। এবং পৃষ্ঠাটিকে বুস্ট করুন যাতে এটি আরও বেশি লোকের হোমপেজে প্রদর্শিত হয়।

এতে পেজের প্রোফাইল বাড়বে, অনেকে লাইক ও পণ্য ও সেবা সম্পর্কে জানতে পারবে। ক্রেতারা উপযুক্ত দেখায় এমন প্রত্যেককে কল করতে পারে, যদি অল্প কয়েকজন থাকে।

তাই পেজের লাইক বাড়ানো এবং প্রচার করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনার পেজ সম্পর্কে অনেকেই জানলে আপনি প্রচুর লাইক পাবেন। আর এতে পেজের গ্রহণযোগ্যতা বাড়বে।


2. ব্র্যান্ডের প্রচার করুন/Brand Promotion

অনলাইনে অনেক ব্র্যান্ডের অনুরূপ পণ্য রয়েছে। কোন ব্র্যান্ড সবচেয়ে বেশি চলবে তা নির্ভর করে প্রচারের উপর। আপনি যদি চান, আপনি লাইভে এসে নিজেকে প্রচার করতে পারেন।

যাইহোক, নিশ্চিত করুন যে আপনি সহজেই পণ্য সম্পর্কে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন, সম্ভাব্য ক্রেতাদের সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেন এবং একই সময়ে পণ্যটি দেখাতে পারেন। এবং আপনি যদি মনে করেন যে আপনি এটি অন্যান্য পেশাদার ব্র্যান্ড প্রচারকারীদের সাথে করতে পারেন, আপনিও এটি করতে পারেন। আজকাল, অনেকেই এই কৌশলটি ব্যবহার করে উপকৃত হচ্ছেন।

অনলাইনে পরিচিত লোকেদের সাথে আপনার নিজের পৃষ্ঠা বা ব্যবসার প্রচার করার জন্য প্রচুর ক্রেতা রয়েছে এবং পৃষ্ঠাটিকে অন্যদের কাছে বিশ্বাসযোগ্য এবং জনপ্রিয় করা সহজ।


3. লাইভ সেল/Live Sell

লাইভ সেল পণ্য বা পরিষেবার প্রচারের জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং কার্যকর কৌশল। আপনি যদি পণ্য বিক্রয় বাড়াতে চান, পণ্যের সাথে লাইভ আসুন। কারণ ছবি দেখে কেউ পণ্য কিনতে আগ্রহী নয়।

কারণ অনেক সময় ছবির সঙ্গে আসল পণ্যের মিল থাকে না। তাই সবাই পণ্যটি লাইভ দেখতে চায় এবং পণ্যটি অর্ডার করতে চায়।


4. নিয়মিত ডিসকাউন্ট দিন/Discount %

পণ্যের প্রকৃত দাম যাই হোক না কেন, ক্রেতারা যখন মূল্য ছাড়ের কথা জেনে তখন পণ্যটি কিনতে আগ্রহী হন। ছাড় দিয়ে লাভের পরিমাণ কমলেও বিক্রি ও পরিচিতি বাড়বে।

ক্রেতারা উপযুক্ত দেখায় এমন প্রত্যেককে কল করতে পারে, যদি অল্প কয়েকজন থাকে। তাই সুযোগ পেলেই পণ্য ও সেবার ওপর ছাড় দিন।


5. নম্রভাবে সাড়া দিন/Good Respond

আপনার পেজ থেকে প্রোডাক্ট নেওয়ার জন্য অনেকেই আপনাকে ম্যাসাজ করবে। সেক্ষেত্রে দ্রুত এবং নম্রভাবে সাড়া দিন। ক্রেতা পণ্যটি কিনবেন কিনা তা আপনার প্রতিক্রিয়ার উপর নির্ভর করে।

অনেকেই ক্রেতার বার্তায় দেরিতে সাড়া দেন। ক্রেতারা উপযুক্ত দেখায় এমন প্রত্যেককে কল করতে পারে, যদি অল্প কয়েকজন থাকে। এমন ব্যবসায় সফলতা আসে না। ক্রেতারা বার্তা দিলে দ্রুত সাড়া দিন। তারা এখন না কিনলেও পরে কিনবে বা অন্য কাউকে কেনার পরামর্শ দেবে।

এবং যদি আপনি এটির অপব্যবহার করেন তবে এটি নিজে কিনবেন না, এটি অন্যকে নিরুৎসাহিত করবে, এটি ব্যবসার সুনাম নষ্ট করবে।


. পণ্যের মান

অনলাইনে ব্যবসা করার সময় পণ্যের গুণমানের সাথে আপস করবেন না। এর কারণ অনলাইন পণ্যের প্রতি ভোক্তাদের আস্থার মাত্রা কম। তাই পণ্যের দাম অনুযায়ী সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত করুন। এতে ব্যবসার লাভ ও সুনাম দুটোই বাড়বে।


. পণ্য রিটার্ন

কোনো কারণে সঠিক পণ্য না পৌঁছালে রিটার্ন অপশনটি রাখুন। এতে ব্যবসার সুনাম ও বিক্রি বাড়বে।


. সময়মত ডেলিভারি

পণ্যের অর্ডার পাওয়ার পর নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি করুন। বিলম্বের কারণে অর্ডার বাতিল হতে পারে এবং ক্রেতা আর অর্ডার দিতে পারবে না।


উপসংহার

অনলাইন ব্যবসায় আপনার ব্যবসার সুনাম তৈরি এবং বজায় রাখার জন্য, আপনাকে কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হবে। আমি আশা করি আপনি উপরের আলোচনায় তাদের সম্পর্কে শিখেছেন।

আমরা আশা করি এই পোস্টটি আপনাকে আপনার অনলাইন ব্যবসায় সফল হতে সাহায্য করবে। যদি আপনার কোন মন্তব্য বা প্রশ্ন থাকে, তাহলে নির্দ্বিধায় আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আমরা অবশ্যই তথ্য দিয়ে আপনাকে সাহায্য করার চেষ্টা করব। আজকের মত এখানেই শেষ করছি।

অনলাইন আয়ের ৩টি দারুণ উপায় । Amazing 3 Jobs for Online Income

3 comments

এখানে 3টি জিনিস যা আপনি ঘরে বসে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে পারেন এবং আপনি যদি কঠোর পরিশ্রম করেন তবে আপনি প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

আমরা এখন প্রযুক্তির সম্প্রসারণ এবং সকল ক্ষেত্রে প্রযুক্তির সহজলভ্যতার যুগে বাস করছি। প্রযুক্তি আমাদের শুধু অলস করেনি বা ইন্টারনেট ব্যবহার করে সময় নষ্ট করতে শেখায়নি, প্রযুক্তি ব্যবহার করে আয়ের হাজারো দরজা খুলে দিয়েছে।

এই প্রযুক্তি এবং ইন্টারনেটের জন্য ধন্যবাদ, লোকেরা এখন বিশ্বাস করতে শুরু করেছে যে টিউশনি বা অফিস ধর্না ছাড়া জীবিকা নির্বাহের একমাত্র উপায় হল কোথাও না গিয়ে আবার ঘরে থাকা।

অনলাইন ইনকাম নিয়ে ইতিমধ্যেই আমাদের অনেক লেখালেখি আছে। আশা করি তারা আপনাকে অনলাইন কাজ, আয়ের পরিমাণ, সময় এবং আরও অনেক কিছু সম্পর্কে ধারনা দিয়েছেন।


আজ আমরা অনলাইনে অর্থ উপার্জনের ৩টি উপায় সম্পর্কে জানবো। আপনি যত বেশি পরিচিত হবেন, আপনার আয় তত বেশি হবে। আমি আশা করি এই জিনিসগুলি আপনাকে বেকারত্ব কাটিয়ে উঠতে অনেক সাহায্য করবে।


প্রিয় পাঠক, দেরি না করে মূল আলোচনায় আসা যাক। তিনটি নতুন অনলাইন আয় তৈরির কার্যক্রম সম্পর্কে জানুন:

1. Brand Promoter

আপনি যখন Facebook খুলবেন, আপনি এখন শুধুমাত্র বিভিন্ন পণ্য লাইভ দেখতে পাবেন। সুন্দর বাগ্মী স্মার্ট ড্রেস আপে যারা আমাদের পছন্দ করেন তাদের পেজ থেকে আমরা আমাদের পছন্দের পণ্য কিনি।

অনেক সময় আমরা পছন্দের বিজ্ঞাপনদাতাদের জন্য সেই পৃষ্ঠা থেকে জিনিস কিনি। এটা অনেক মানুষ যারা মিডিয়া পছন্দ মত.

আপনার যদি পণ্য সম্পর্কে ধারণা থাকে, সুন্দরভাবে কথা বলার ক্ষমতা থাকে, নম্রতা, স্মার্টনেস, ড্রেস সেন্স সহ মন্তব্য পরিচালনা করার ধৈর্য থাকে তবে আপনি আপনার ব্যবসার পণ্য বা অন্য কারও পণ্যের ব্র্যান্ড প্রবর্তক হিসাবে কাজ করতে পারেন।

ব্র্যান্ড প্রচার হল একটি পণ্যের বিশদ বিবরণ একটি লাইভ উপায়ে উপস্থাপন করা, ক্রেতাদের আকৃষ্ট করার জন্য এটি একটি আকর্ষণীয় উপায়ে উপস্থাপন করা, ক্রেতাদের সাথে সরাসরি কথা বলা যাতে সম্ভাব্য ক্রেতারা মনে করেন যে তারা বাজারে যাচ্ছেন এবং পণ্যটি মুখোমুখি দেখতে পাচ্ছেন।

সুতরাং আপনার যদি ব্র্যান্ড প্রচার সম্পর্কে ধারণা থাকে এবং আপনি এটি করতে পারেন বলে মনে করেন তবে আপনি শুরু করতে পারেন।

শুধু ভালো শিক্ষাই নয়, তার সতর্কতা ও নিষ্ঠাও সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। যা থেকে পরবর্তীতে আরও বড় পরিসরে কাজ বা উদ্যোগ নিতে পারবেন। আপনি প্রতিষ্ঠানের উপর নির্ভর করে এই কাজের জন্য অর্থ প্রদান করেন।

আপনি প্রতি মাসে 9000-20000 পর্যন্ত পেতে পারেন, অথবা আপনি আলোচনার প্রতিটি লাইভ বিষয়ের জন্য অর্থ প্রদান করতে পারেন।


2. PDF Creator

আপনি বই থেকে PDF ফাইল তৈরি এবং আপলোড করে ভাল অর্থ উপার্জন করতে পারেন। এর জন্য ডাউনলোড করুন পিডিএফ কনভার্টার, যা প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যায়।

তারপর আপনি যে বইটি PDF করতে চান তার একটি ছবি তুলুন এবং PDF Converter দিয়ে PDF এ কনভার্ট করুন

আপনি যদি মার্কেটপ্লেসে কাজ করেন, আপনি ক্লায়েন্টের পক্ষ থেকে PDF রূপান্তর করতে পারেন, অথবা আপনি নিজে নিজে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে PDF ফাইল তৈরি এবং আপলোড করতে পারেন।

এর জন্য গুগলে পিডিএফ পাওয়া যায় এমন সাইট সার্চ করুন, সেখানে পিডিএফ আপলোড করুন, অন্য কেউ এখান থেকে পিডিএফ ডাউনলোড করলে পেমেন্ট পাবেন।

সেই সাইটগুলিতে যে বিজ্ঞাপনগুলি স্থাপন করা হয় সেগুলির জন্য সাইটগুলি আপনাকে অর্থ প্রদান করবে।

এই ক্ষেত্রে আপনি সাইট ভেদে প্রতি ডাউনলোড $1 থেকে $5 পর্যন্ত পেতে পারেন। আপনি টাকা উত্তোলনের মাধ্যম হিসেবে paypal, pioneer ব্যবহার করতে পারেন, এগুলোর মাধ্যমে টাকা তুলতে পারবেন।

সাম্প্রতিক কর্পোরেট কেলেঙ্কারির ফলে এই বিশেষত্বের চাহিদা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে । এছাড়াও সব জায়গায় বই বহন করা সম্ভব নয়, সেখানে আপনি সহজেই আপনার ফোনে 200 পিডিএফ সংরক্ষণ করতে পারেন।


3. Copy Paste

যারা অনলাইন ইনকামের ক্ষেত্রে নতুন, আর্টিকেল রাইটিং, ব্লগিং, ডিজিটাল মার্কেটিং বা অন্য কোন কাজে সফল হননি, বা এখনও শিখেননি, তবে তাদের শুরু করার জন্য একটি কপি-পেস্টের কাজ চান। কারণ এখানে আপনাকে Internet, MS Word, Email এর কাজ সম্পর্কে জানতে হবে।

প্রথমে কোম্পানি বা ক্লায়েন্টের চাহিদা অনুযায়ী ফাইলটি কপি করুন এবং MS Word এ পেস্ট করুন, এখানে কোম্পানি বা ক্লায়েন্টের চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন পরিবর্তন, সংযোজন এবং সংযোজন করুন।

তারপর কোম্পানির চাহিদা অনুযায়ী ইমেইল বা অন্য মাধ্যমে পাঠান। ক্লায়েন্ট বা কোম্পানির উপর নির্ভর করে, প্রতি মাসে 5000-6000 টাকা উপার্জন করা সম্ভব, যা শুরুতে আপনার জন্য একটি ভাল পরিমাণ।

এইভাবে আপনি কাজ করতে শিখবেন এবং নিজেকে আরও ভাল এবং উন্নত স্তরের কাজের জন্য প্রস্তুত করবেন। কারণ এখানে কাজ জানা থাকলে কাজের অভাব হবে না।

কিন্তু আপনি যাই করুন না কেন, আপনি অন্য লোকেদের প্রতি যে সাহায্য প্রদান করেন তাতে আপনাকে আরও বৈষম্যমূলক হতে হবে। তবেই সফলতা আসবে।


উপসংহার

অনলাইন আয়ের জন্য নতুন আয়ের ধারা তৈরি করা হচ্ছে। এখানে কাজ করতে চাইলে যেকোনো ধরনের কাজ করে টাকা আয় করা যায়।

যাইহোক, আপনি যদি অ্যাডভান্স লেভেলের চাকরি না শিখেন, তাহলে চাকরিগুলো অস্থায়ী হবে, এবং আপনি এই চাকরিগুলো থেকে খুব বেশি টাকা আয় করতে পারবেন না। যাইহোক, আপনি সহজেই অর্থ উপার্জন করতে পারেন যেমন অর্থ ব্যয় না করে দৌড়ানো বা বিলাসিতা ছাড়া দৌড়ানো।

আপনি যদি অনলাইন আয়ের মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু করতে চান, ইন্টারনেটের কাজ শিখতে শুরু করুন এবং সফলভাবে আয় করুন।

কারণ আয় যতই কম হোক না কেন, ঘরে বসেই আপনার জন্য সহজে আয় করা যায় এবং আপনি সহজেই অন্যান্য কাজ করতে পারেন। তাই আপনি এই কাজগুলোর যেকোনো একটি সিঙ্গেল সিট ছাড়াই অনায়াসে শুরু করতে পারেন | 

আপনার কম্পিউটারের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ৬ টি ছোট সফটওয়্যার । 6 Powerful Small Softwares for PC

2 comments

আজ আমি আপনাদের সাথে কিছু ভিন্ন বিষয়ে কথা বলব। স্মার্টফোন, ওয়েবসাইট নিয়ে অনেক কথা ছিল। আজ আমি কিছু উইন্ডোজ সফটওয়্যার নিয়ে কথা বলব। মুক্তহাসি ডটকম সাইটে নিত্যদিন সবধরনের পোস্ট আপডেট করা হচ্ছে । তাই আমাদের সাথেই থাকুন (www.muktohasi.com) | 

যেগুলো আকারে ছোট, ব্যবহারে বিনামূল্যে এবং খুবই শক্তিশালী। যার মানে এটি বছরের সবচেয়ে বিভ্রান্তিকর সময়, সেইসাথে সবচেয়ে বিভ্রান্তিকর হতে চলেছে৷



তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক কিছু বিনামূল্যের, ছোট এবং শক্তিশালী উইন্ডোজ সফটওয়্যার:

কিছু ছোট কিন্তু শক্তিশালী এবং কার্যকরী পিসি সফটওয়্যার


1. Everything

Everything একটি ফাইন্ডবার যা দিয়ে যেকোনো ফাইল বা সফটওয়্যার খুঁজে বের করা যায়। আমরা জানি যে উইন্ডোজের ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন খুবই ধীরগতির এবং এখানে যেকোনো কিছু খুঁজে পেতে অনেক সময় লাগে এবং ফলাফল পেতে এত বেশি সময় লাগে যে এটি বিরক্তিকর।

কিন্তু যেকোন ফাইল, সফ্টওয়্যার বা এমনকি অনেক ডেটা সহ একটি ড্রাইভ থেকে সবকিছু খুব দ্রুত আসে।

আপনি শুনলে অবাক হবেন যে এই সুন্দর সফটওয়্যারের সাইজ মাত্র 1.4 MB। তবে একটি জিনিস মনে রাখবেন যে এটি আপনার যে কোনও ব্যক্তিগত বা লক করা ফাইল খুঁজে পেতে পারে।

তাই আপনার কাছে যদি একটি গোপন ফাইল থাকে তবে আপনাকে অবশ্যই একটি গোপন কোড দিয়ে সংরক্ষণ করতে হবে।


2. Unlocker

আমাদের তালিকার দ্বিতীয় সফ্টওয়্যারটিকে Unlocker বলা হয়। এটি আপনাকে আপনার ফাইল ম্যানেজারে থাকা যেকোনো ফাইল মুছে ফেলতে দেয়।

এর মানে হল যে আপনার ফোনের কিছু ফাইল পরিত্রাণ পেতে আপনাকে আনলকার ব্যবহার করতে হতে পারে যেগুলির নাম পরিবর্তন, সরানো, মুছে ফেলা বা কাটা যাবে না।

যে কোনো ধরনের ফাইল মুছে ফেলা সম্ভব যা সত্যিই আশ্চর্যজনক। যাইহোক, এর আকার মাত্র 393 কিলোবাইট যা আপনাকে সম্পূর্ণরূপে স্তব্ধ করে দেবে।

এটি আপনার সমস্ত ফাইল মুছে ফেলবে, তবে আপনার নিজের ফাইল বা ফোল্ডারে সমস্যা থাকলে তা মুছুন। এটি দিয়ে কোনো উইন্ডোজ ফাইল ডিলিট না করার জন্য আমাকে দোষারোপ করবেন না।


3. Texter

তালিকার 3য় সফ্টওয়্যার হল Texter এই সফ্টওয়্যারটির সাহায্যে, আপনি যদি টাইপ করতে ভাল না হন তবে আপনি সংক্ষিপ্ত আকারে টাইপ করে আপনার টাইপ করা পাঠ্যটি এখানে সংরক্ষণ করতে পারেন, তাই আপনি সংক্ষিপ্ত আকারে টাইপ করার সময় পুরো বানানটি লেখা হবে।

আপনি এখানে একটি বাক্য সংরক্ষণ করতে পারেন যদি আপনি এটি বারবার টাইপ করেন। আপনি যদি পরবর্তীতে কিছু শব্দ বা উক্ত বাক্যের কিছু অংশ লিখতে থাকেন তাহলে সম্পূর্ণ বাক্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে লেখা হয়ে যাবে। এই সফটওয়্যারটির সাইজ মাত্র 482 KB কিন্তু সার্ভিসটি দারুণ।


4. Unchecky

আমাদের চতুর্থ সফটওয়্যার হল Unchecky সফ্টওয়্যারটির আকার মাত্র 1.29 এমবি। আমরা জানি যে যখন আমরা Windows এ কোন সফটওয়্যার ইন্সটল করি তখন আমাদের স্ক্রিনে বিভিন্ন সফটওয়্যারের টুলবক্স দেখা যায়।

এগুলি বিভিন্ন অনুমতির জন্য জিজ্ঞাসা করে এবং বিভিন্ন বাক্সে টিক দেয়। এটা খুবই বিরক্তিকর কাজ। এছাড়াও একটি সফটওয়্যার ইন্সটল করার সময় আরো অনেক সফটওয়্যার ইন্সটল করা থাকে বা সামনে ইন্সটল করার অনুমতি লাগে এবং আমরা বিনা নোটিশে অনুমতি দিচ্ছি।

এটি অনেক ক্ষতিকারক সফ্টওয়্যার ইনস্টল করা হতে পারে যা পিসিতে ভাইরাস, ম্যালওয়্যার বা অন্যান্য সমস্যার কারণ হতে পারে।

কিন্তু আপনি যখন আনচেক ব্যবহার করেন, আপনার পিসিতে কোনো সফটওয়্যার ইন্সটল করার সময় আপনি অন্য কোনো ডায়ালগ বক্স পাবেন না বা অন্য কোনো সফটওয়্যার ইনস্টল করার অনুমতি চাইবেন না।

আপনাকে যা করতে হবে তা হল আপনি যে সফ্টওয়্যারটি ইনস্টল করছেন তার জন্য অনুমতি দিতে হবে। এই সফটওয়্যারটি বেশ উপকারী এবং হয়রানি কমায়।


5. QT Tab bar

আমাদের তালিকার ৫ম সফ্টওয়্যার হল QT Tab bar এই সফ্টওয়্যারটির আকার মাত্র 4.29 এমবি। সফ্টওয়্যারটির কাজ হল আমাদের ওয়েব ব্রাউজারের বিভিন্ন পৃষ্ঠাগুলিকে গুগল ক্রোমের ট্যাবের মতো ট্যাবের মতো ক্রমানুসারে সাজানো।

আমরা ব্রাউজ করার সময় বিভিন্ন ওয়েব পৃষ্ঠার সারি ট্যাব জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকে। আপনি যদি পিছনের একটি ট্যাবে ফিরে যেতে চান তবে আপনাকে আবার ট্যাবটি দেখতে হবে যা বেশ বিরক্তিকর এবং সময়সাপেক্ষ।

তাই এই সফ্টওয়্যারটি ব্যবহার করে আপনি ট্যাব আকারে ব্যবহার করা ট্যাবগুলিকে সাজাতে পারেন যাতে আপনি যখন সেই বারে ক্লিক করতে চান তখন আপনি কোনও অনুসন্ধান ছাড়াই সেই ট্যাবটি খুলতে পারেন।


6. Windirstat

আমাদের তালিকার 6 তম সফ্টওয়্যার হল Windirstat সফটওয়্যারটির সাইজ মাত্র ৬ এমবি। এটি আপনাকে আপনার পিসির বিভিন্ন ফাইল মুছে ফেলতে সাহায্য করবে, যেমন খালি ড্রাইভ।

উদাহরণস্বরূপ, ধরুন আপনার ড্রাইভে প্রচুর সংখ্যক ফাইল রয়েছে, কিন্তু ডিফল্ট এক্সপ্লোরার আপনাকে তাদের আকার দেখায় না।

কিন্তু আপনি যখন এই সফ্টওয়্যারটি ব্যবহার করবেন তখন আপনাকে আপনার ড্রাইভের জন্য বিভিন্ন ফাইলের আকার এবং বিভিন্ন ফাইল ফোল্ডারের জন্য বিভিন্ন রঙ দেখানো হবে।

একটি বড় ফাইলের জন্য একটি বড় বক্স এবং একটি ছোট ফাইলের জন্য একটি ছোট বক্স দেখানো হবে এবং সেই রঙ দিয়ে চিহ্নিত বক্সে ক্লিক করলে তার আকার দেখাবে, ভিতরে আরও কতগুলি ফোল্ডার রয়েছে এবং আপনি সহজেই আপনার পিসিতে বড় ফাইলগুলি খুঁজে পেতে এবং মুছতে পারবেন। 


এই কয়েকটি সফটওয়্যার, এক কথায়, এক ধরনের ছোট মরিচের ঝাল। আমি সত্যিই এই সফ্টওয়্যার ব্যবহার উপভোগ |


আপনিও সফ্টওয়্যারটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন এবং যদি আপনি অন্য কোন ছোট মরিচ সম্পর্কে জানেন তবে আমাদের কমেন্ট বক্সে জানান।

আজ আপনাদের সকলের জন্য শুভকামনা!

১ ক্লিকে ফেসবুক থেকে ডিলিট হওয়া মেসেজ ফিরিয়ে আনুন । Recover Facebook Deleted Message

2 comments

ফেসবুক বর্তমানে যোগাযোগের অন্যতম জনপ্রিয় মাধ্যম। আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ঘটে যাওয়া প্রায় সবকিছুই ফেসবুকে আমাদের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করি।

ইনবক্সে বন্ধুদের পাঠানো ভিডিও, বার্তা বা ছবি ফেসবুকের আর্কাইভে সংরক্ষিত থাকে।

আমরা চাইলে সেই বন্ধুর চ্যাট হেড খুলে ইনবক্সে থাকা ছবি, মেসেজ, ভিডিও দেখতে পারি। অনেক সময় আমরা নিজেরাই মেসেজ, ভিডিও, ছবি ডিলিট করি।

কিন্তু ভুল করে মেসেজ মুছে গেলে পাঠক কী করবেন? হতে পারে আপনার আবার সেগুলি দরকার বা আপনি সেগুলিকে স্মৃতি হিসাবে রাখতে চান।



সেক্ষেত্রে আপনি তাদের প্রত্যাবর্তনের কথা শুনে হতবাক হবেন এবং এই সম্পর্কে আরও জানতে চাইতে পারেন। অনেক দিনের স্মৃতি হারিয়ে ফেললে খুব খারাপ লাগবে। তবে চিন্তার কোনো কারণ নেই।

অনেকেই হয়তো জানেন না যে ফেসবুকে এমন একটি বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা আপনাকে মুছে ফেলা বার্তা ফেরত পেতে দেয়। আপনি Facebook থেকে বার্তাগুলি মুছে ফেলার পরে, সেগুলি আপনাকে আর দেখানো হবে না, তবে Facebook সংরক্ষণাগারে সংরক্ষণ করা হবে৷

আপনি চাইলে ফেসবুক আর্কাইভ থেকে কাঙ্খিত মেসেজ, ছবি বা ভিডিও ডাউনলোড করে ফেরত পেতে পারেন। পাঠকরা শুনে অবাক হচ্ছেন না? আজ আমরা বিস্তারিত আলোচনা করব কিভাবে ফেসবুকে ডিলিট হয়ে যাওয়া মেসেজ ফেরত পাওয়া যায়। আর দেরি না করে শুরু করা যাক বিস্তারিত আলোচনা।

কীভাবে ফেসবুকে মুছে ফেলা বার্তাগুলি পুনরুদ্ধার করবেন:

আপনার Facebook প্রোফাইল থেকে মুছে ফেলা বার্তা, ভিডিও বা ফটো পুনরুদ্ধার করতে আপনি এখানে কিছু পদক্ষেপ নিতে পারেন। আসুন ধাপে ধাপে সেগুলি দেখে নেওয়া যাক:


দ্রষ্টব্য: আপনি এই পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করে একবারে আপনার সমস্ত ডেটা ডাউনলোড করতে পারেন।

তবে এখান থেকে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য বা ডেটা খুঁজে পাওয়া কঠিন হবে। অবশ্যই, একটু কঠিন অসম্ভব নয়, তবে আপনি একটু চেষ্টা করে এটি করতে পারেন।


1. প্রথমে Facebook সেটিংস থেকে "General account Settings" বিকল্পটি নির্বাচন করুন৷

"General account Settings" খোলার পরে আপনি "Download a Copy of your Facebook Data" বিকল্পটি দেখতে পাবেন।

এখান থেকে আপনাকে "Message" বিকল্পে ক্লিক করতে হবে এবং "Create" বোতামে ট্যাপ করতে হবে। তারপর ডাউনলোড এ ক্লিক করুন।

পরবর্তী পৃষ্ঠায় যান এবং আপনি "Download Archive" বোতামটি দেখতে পাবেন, বোতামটিতে ক্লিক করুন তারপর প্রম্পট বিকল্পটি আসবে, এখানে আপনাকে আপনার পাসওয়ার্ড চাওয়া হবে।

এখানে আপনাকে পাসওয়ার্ড দিয়ে পরবর্তী ধাপে যেতে হবে। কিছুক্ষণ পরে ডাউনলোড প্রক্রিয়া শেষ হবে এবং আপনার কথোপকথন ডাউনলোড করা হবে।

মনে রাখবেন, পাসওয়ার্ড চাওয়া কোনো সন্দেহের বিষয় নয়, ফেসবুকের নিরাপত্তা ব্যবস্থার একটি অংশ।


2. আপনার পাসওয়ার্ড লেখার পর, "Submit" বোতামে ক্লিক করুন।

তারপর আপনি যে ডাটা বা মেসেজ ডাউনলোড করতে চান তার ডাউনলোড লিঙ্ক আপনার ইমেইল আইডিতে মেইল ​​করা হবে যেটা দিয়ে আপনি ফেসবুক প্রোফাইল খুলেছেন।

তারপর এক মিনিট অপেক্ষা করুন, তারপর আপনার মেইল ​​চেক করুন।

আপনি ইমেল ইনবক্সে আপনার মুছে ফেলা বার্তাগুলির ডাউনলোড লিঙ্কটি দেখতে পাবেন, লিঙ্কটিতে ক্লিক করলে আপনি মুছে ফেলা বার্তাগুলি ফিরে পাবেন।

ইমেল পাঠানোর পাশাপাশি, আপনি আপনার বিজ্ঞপ্তিগুলি টগল করে বিজ্ঞপ্তিগুলিও পাঠাতে পারেন, আপনি এখানে ক্লিক করে সহজেই আপনার পছন্দসই বার্তা ফাইল ডাউনলোড করতে পারেন।


3. মুছে ফেলা বার্তা ফাইলটি ডাউনলোড করার পরে, এটি Unzip করুন এবং এটি খুলুন। এখানে আপনি সমস্ত মুছে ফেলা Message,Video,Image,poke, সবকিছু ফিরে পাবেন।

কিন্তু আপনি যে ফাইলটি ডাউনলোড করেছেন। এটি .html ফরম্যাটে হবে, তাই আপনি যখন এটি খুলবেন, ডাবল ক্লিক করুন, তারপরে এটি ব্রাউজারে খুলবে যে আপনি মুছে ফেলা বার্তা ফাইলটি খুলতে চান।

এখন সেই মুছে ফেলা বার্তাগুলি আপনার ফোনে সংরক্ষণ করা হবে। আপনি যদি চান, আপনি তালিকায় ক্লিক করে মুছে ফেলা বার্তা পুনরুদ্ধার করতে পারেন।

Facebook থেকে মুছে ফেলা বার্তাগুলি পুনরুদ্ধার করার জন্য এখানে কিছু নির্দিষ্ট নির্দেশিকা রয়েছে। আশা করি এগুলো অনুসরণ করে আপনি আপনার হারিয়ে যাওয়া কথোপকথন, ছবি বা ভিডিও ফিরে পাবেন।


উপসংহার

বন্ধুদের বার্তা, ছবি, ভিডিও বা সম্পূর্ণ কথোপকথন, এগুলি সর্বদা আমাদের প্রিয় | ইচ্ছাকৃত বা অনিচ্ছাকৃতভাবে সরিয়ে ফেললে খারাপ লাগা স্বাভাবিক। আমরা হয়তো সেগুলি মুছতে চাই না, অথবা আমরা সেগুলি পরে ব্যবহার করতে চাই৷

সেক্ষেত্রে এ বিষয়ে জানা খুবই ভালো পদক্ষেপ হতে পারে। আমরা অনেকেই ডিলিট হয়ে যাওয়া মেসেজ ফেরত পাওয়ার ফিচার সম্পর্কে জানি না। কিন্তু ফেসবুকের এই ফিচারের মাধ্যমে আপনি সহজেই ডিলিট করা মেসেজ ফেরত পেতে পারেন।

আশা করি আজকের নিবন্ধটি আপনাকে আপনার মুছে ফেলা ফেসবুক বার্তাগুলি ফিরে পেতে সহায়তা করবে।

আপনার যদি কোন মন্তব্য বা প্রশ্ন থাকে যে কীভাবে মুছে ফেলা ফেসবুক বার্তাটি ফিরে পাবেন, মন্তব্যে আমাদের জানাতে ভুলবেন না।

আমরা অবশ্যই দ্রুত উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব। সবাইকে ধন্যবাদ, আজকের মত এখানেই শেষ করছি।

মোবাইলে ফ্রিল্যান্সিং করার সেরা ৫টি কাজ । Earn Money From Mobile

1 comment

প্রযুক্তি আমাদের কেবল অলস এবং অযোগ্য করে তোলেনি, এটি আমাদের কাজের পদ্ধতিতেও পরিবর্তন এনেছে। এখন শুধু টিউশনিই শেষ মেটানোর উপায় নয়। ফ্রিল্যান্সিং এবং আউটসোর্সিং হতে পারে আয়ের একটি বড় উৎস যাদের টিউশন চলাকালীন আয়ের একমাত্র উৎস টিউশন।

অনেকে মনে করেন ফ্রিল্যান্সিং এবং আউটসোর্সিং একই জিনিস। কিন্তু বাস্তবে কাজ দুটি ভিন্ন। ফ্রিল্যান্সিং হল স্বাধীনভাবে যেকোনো কাজ করে অর্জিত অর্থ, আর আউটসোর্সিং হচ্ছে অন্য কারো বা কোম্পানির অধীনে কোনো কাজ করা।

যা সরাসরি কোম্পানিতে করা হয় না, ফ্রিল্যান্সিং এর মত যে কোন জায়গা থেকে চাকরির সুযোগ রয়েছে এবং কোন তাড়াহুড়ার সময় নেই। আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিংয়ে নতুন হন, তাহলে আপনার যে কোনো কিছু করা কঠিন হতে পারে। তবে এমন অনেক চাকরি আছে যেগুলোর জন্য কোনো অভিজ্ঞতা, শিক্ষাগত যোগ্যতা ও দক্ষতার প্রয়োজন হয় না।



অল্প সময়ে কাজ শিখে, আপনি আপনার সামর্থ্যের চেয়ে বেশি অর্থ উপার্জন করতে সক্ষম হবেন। আজ আমরা এই ধরনের কিছু কাজের বিস্তারিত আলোচনা করতে যাচ্ছি। প্রিয় পাঠক, দেরি না করে মূল আলোচনায় আসা যাক।

স্মার্টফোনের মাধ্যমে নতুনদের জন্য যে ৫টি কাজ করা যায়


1. Article Writer

অনলাইন সংবাদপত্র বাড়ছে। আমরা আর দৈনিক পত্রিকার জন্য বসে থাকি না। কোন খবর জানতে চাইলে অনলাইন পত্রিকা থেকে জেনে নিন। এই ম্যাগাজিন এবং ব্লগে লেখার জন্য অনেক সাম্প্রতিক এবং বিষয়ভিত্তিক লেখার প্রয়োজন হয়।

আপনি যদি থিম্যাটিক বা সাম্প্রতিক বিষয়গুলিতে নিবন্ধ লিখতে পারেন এবং মাইক্রোসফ্ট ওয়ার্ডের কাজগুলি জানেন তবে আপনি সহজেই নিবন্ধ লেখার কাজটি করতে পারেন। এটির জন্য ভাষা দক্ষতা, বানান, বাক্য গঠন, সূক্ষ্ম সম্পাদনা এবং বিষয়বস্তু অনুসন্ধানের মতো মৌলিক জ্ঞান এবং দক্ষতা প্রয়োজন।

এই চাকরির জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা কম থাকলেও কোনো সমস্যা নেই। আপনি যদি বিভিন্ন অনলাইন সংবাদ নিবন্ধগুলি পড়েন বা অনুসন্ধান করেন তবে আপনি এই জাতীয় সংবাদপত্রে লেখা সার্কুলার এবং সেগুলি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। 

এই চাকরিতে আপনি প্রাথমিকভাবে 5000-6000 টাকা আয় করতে পারেন। দক্ষতা অর্জন সাপেক্ষে, আপনি পরে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে এবং নিবন্ধ লিখতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনি প্রতি নিবন্ধে 10-15 ডলার আয় করতে পারবেন। তবে এর জন্য ইংরেজি দক্ষতা এবং লেখার ধরন অনেক ভালো হতে হবে, যা লেখার সময় আপনি অর্জন করতে পারবেন।


2. Survey work

বিভিন্ন পণ্য বা পরিষেবা সংস্থাগুলি তাদের পণ্য বা পরিষেবাগুলির খ্যাতি এবং বাজারের অবস্থান যাচাই করার জন্য অন্যান্য সংস্থার মাধ্যমে জরিপ পরিচালনা করে। জরিপ মানে জরিপ। এটি মূলত নির্ধারণ করে কে পণ্যটি ব্যবহার করে, তারা ব্যবহারে সন্তুষ্ট কিনা, কোন বয়সের লোকেরা এটি বেশি ব্যবহার করে, তাদের পেশা, বয়স, পছন্দ ইত্যাদি।

এই তথ্য ব্যবহার করে, কোম্পানিগুলি তাদের পণ্য এবং পরিষেবাগুলির অর্থ পরিবর্তন করতে পারে এবং তাদের আরও লাভজনক করতে পারে। এই কাজগুলো কোম্পানি ফ্রিল্যান্সারদের আউটসোর্স করে। আপনি চাইলে আমেরিকান আইপি কিনতে পারেন, বিভিন্ন ওয়েবসাইটে একাউন্ট করে নিজেই সার্ভে করতে পারেন।

কাজের অভিজ্ঞতার প্রয়োজন নেই, তবে ইংরেজি প্রয়োজন। আপনার একটি অ্যাকাউন্ট খোলার, প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার এবং সারা রাত জেগে থাকার অভ্যাস থাকতে হবে। প্রাথমিকভাবে আপনি প্রতি মাসে 8-10 হাজার টাকা আয় করতে পারেন। দক্ষতা ও কাজের মান বুঝে এই আয়ের পরিমাণ বাড়বে।


3. Translation Work

বিভিন্ন ভাষার প্রবন্ধ বা বই ইংরেজি বা অন্যান্য ভাষায় অনুবাদ করাকে অনুবাদ বলে। আপনি যদি ভাষায় সাবলীল হন, ভালো লিখতে পারলে আপনি অনুবাদকের কাজ করতে পারেন। মূলত আপনাকে ইংরেজি থেকে বাংলা করতে হবে।

এমনভাবে লিখুন যাতে পাঠক বুঝতে না পারে যে এটি অন্য ভাষায় লেখা, মনে হয় এটি একটি বাংলা গল্প বা লেখা। কঠিন এবং অপ্রাসঙ্গিক ব্যাখ্যা এড়িয়ে চলুন। অনেক লেখক এই কাজ করছেন, এবং তাদের মাসিক আয় খুব ভাল।

প্রাথমিকভাবে আপনি সহজেই 5-10 হাজার টাকা আয় করতে পারেন। অনুবাদের দক্ষতা এবং মানের উপর নির্ভর করে, আপনি পরে বড় বই অনুবাদ করার সুযোগ পেতে পারেন, যা থেকে আপনি অনেক বেশি আয় করতে পারেন।


4. YouTube Content Creator

এখন সবার হাতে স্মার্টফোন। আর ইউটিউবে চ্যানেল খোলা খুব সহজ। শুধুমাত্র একটি ইমেইল আইডি খোলা যাবে। আপনি আপনার মোবাইল ফোনে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারেন। তবে এর জন্য আপনার ভালো কন্টেন্ট থাকতে হবে, প্রচুর ভিউ থাকতে হবে।

যদি বেশি ভিউ হয়, অর্থাৎ 30,000 সাবস্ক্রাইবার এবং যদি প্রতিটি ভিডিও 3 মিনিটের বেশি দেখা হয় তবে YouTube আপনার ভিডিওর বিজ্ঞাপন দেবে, যেখান থেকে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারেন। আজকাল প্রাণীদের প্র্যাঙ্ক, ফানি, মুভি রিভিউ, মোটিভেশনাল, ফানি ভিডিও প্রচুর ভিউ পায়।

আপনি চাইলে এগুলো বানাতে পারেন। এগুলো আপলোড করলে আপনি যেমন প্রচুর ভিউ পাবেন, তেমনি ভালো পরিমাণ টাকাও আয় করা যাবে।


5. Photography

মোবাইল দিয়ে ছবি তুলে বিভিন্ন সাইটে বিক্রি করতে পারেন। ওয়েবসাইট, পেজ, মাইমস, ভিডিও, কন্টেন্ট, আর্টিকেল, পেজ ইত্যাদিতে প্রচুর ছবি তোলা হয়। আর এই ছবিগুলো আমরা গুগলে সার্চ করে পেয়ে থাকি। এখানে কিছু ওয়েবসাইট আছে যারা আপলোড করেছে যারা অন্যদের কাছ থেকে ছবি কেনে।

iStock ফটো এবং আর্ট স্টোরফ্রন্টের মতো, আপনি এই দুটি সাইটে একটি অ্যাকাউন্ট থাকার মাধ্যমে আপনার নিজের ছবি বিক্রি করতে পারেন। আপনি হবে

এরকম আরো অনলাইনে উপার্জন সম্পর্কে জানতে ভিজিট করুন (www.muktohasi.com) আমরা আপনাদের জন্য সবসময় নতুন নতুন পোস্ট আপডেট করে যাচ্ছি ।

Girls Beast Mehndi Design Free Hand | Wedding Ceremony and Festival Creative Ideas

No comments

 Beautiful and Easy Henna Mehndi Designs | মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন






























Eid Mehndi Design 2022 | mehndi design 2022 new style simple | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 tikki | arabic mehndi design 2022 | mehndi design 2022 | eid mehndi design 2022 | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 for girl



Eid Mehndi Design 2022 | mehndi design 2022 new style simple | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 tikki | arabic mehndi design 2022 | mehndi design 2022 | eid mehndi design 2022 | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 for girl





Eid Mehndi Design 2022 | mehndi design 2022 new style simple | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 tikki | arabic mehndi design 2022 | mehndi design 2022 | eid mehndi design 2022 | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 for girl


































Eid Mehndi Design 2022 | mehndi design 2022 new style simple | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 tikki | arabic mehndi design 2022 | mehndi design 2022 | eid mehndi design 2022 | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 for girl


মেয়েদের হাতের মেহেদি ডিজাইনের ছবি Easy Henna Mehndi Designs | New Mehendi Design Pics 2022

No comments

Mehdi Design Collection | Creative Care to Beauty Mehedi Pic





Eid Mehndi Design 2022 | mehndi design 2022 new style simple | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 tikki | arabic mehndi design 2022 | mehndi design 2022 | eid mehndi design 2022 | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 for girl



















Eid Mehndi Design 2022 | mehndi design 2022 new style simple | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 tikki | arabic mehndi design 2022 | mehndi design 2022 | eid mehndi design 2022 | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 for girl














Eid Mehndi Design 2022 | mehndi design 2022 new style simple | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 tikki | arabic mehndi design 2022 | mehndi design 2022 | eid mehndi design 2022 | mehndi design 2022 back hand | mehndi design 2022 for girl



























© All Rights Reserved
Made with Forhad Elahe