HOT

6/recent/ticker-posts

স্ট্রেচ মার্ক কমানোর প্রাকৃতিক সমাধান জেনে নিন

👉 See More/আরো পড়ুন

স্ট্রেচ মার্ক কমানোর প্রাকৃতিক সমাধান জেনে নিন। প্রেগনেন্সি(Pregnancy) মানেই একটা মেয়ের লাইফের নতুন চ্যাপ্টারের শুরু। এসময় শারীরিক ও মানসিক অনেক কমন কমপ্লিকেশনের মধ্যে একটি হলো স্ট্রেচ মার্কস(Stretch marks)। নরমালি স্ট্রেচ মার্কস প্রেগনেন্সির ১৩-৩১ উইক থেকে দেখা যায়। আর এই স্ট্রেচ মার্কস মোটামুটি ৯০% মেয়েই প্রেগনেন্সির সময়ে ফেস করে।

স্ট্রেচ মার্ক

নতুন এই লাইফস্টাইলের সাথে মানিয়ে নিতে গিয়ে অনেকেই স্কিনের টেক কেয়ার করার খুব একটা সময় পায় না। এর ফলে স্ট্রেচ মার্কস-এর মতো প্রবলেম স্কিনে পার্মানেন্টলি থেকে যায়। কিন্তু সময়মতো একটু টেক কেয়ার করলে ইজিলি স্ট্রেচ মার্কস(Stretch marks) কমানো পসিবল।চলো আগে জেনে নেই, প্রেগনেন্সির টাইমে স্ট্রেচ মার্কস কেন হয়। এসময় কিছু বডি পার্ট দ্রুত গ্রো করে যার সাথে স্কিন গ্রোথের ইমব্যালেন্স হয়।

এছাড়া হরমোনাল চেঞ্জ-এর কারণেও স্ট্রেচ মার্কস হতে পারে। স্ট্রেচ মার্কস কমানোর অনেক ক্রিম বা বডি লোশন(Body lotion) আছে। কিন্তু প্রেগনেন্সির সময়ে স্পেশালিস্ট-এর সাজেশন ছাড়া এসব প্রোডাক্ট ইউজ করা উচিত না। কারণ প্রোডাক্টের কেমিকেল রিয়েকশন এসময় অনেক ক্ষতিকর হতে পারে। তাই স্ট্রেচ মার্কস(Stretch marks) কমাতে তুমি ন্যাচারাল কিছু ইনগ্রেডিয়েন্ট ইউজ করতে পারো। এই ন্যাচারাল ইনগ্রেডিয়েন্টগুলো কোনো ধরনের কমপ্লিকেশন ছাড়াই তোমার স্ট্রেচ মার্কস কমাতে অনেক হেল্প করবে।

অলিভ অয়েলঃ
প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে অলিভ অয়েল(Olive oil) হালকা গরম করে স্ট্রেচ মার্কস-এর জায়গায় আস্তে আস্তে ম্যাসাজ করো। এটি স্কিনের ব্লাড সার্কুলেশন বাড়িয়ে স্ট্রেচ মার্কস হালকা করবে। এছাড়াও রেগুলার অয়েল ম্যাসাজ করলে স্কিন ময়েশ্চার্‌ড ও হাইড্রেটেড থাকবে। চাইলে অলিভ অয়েলের পরিবর্তে কোকোনাট অয়েলও ম্যাসাজ(Massage) করা যায়।

মধু ও গ্লিসারিনঃ
প্রতি উইকে ২-৩ দিন মধু(Honey) ও গ্লিসারিন ভালোমতো মিক্স করে স্ট্রেচ মার্কস-এর উপর অ্যাপ্লাই করো। শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলো। মধুর অ্যান্টিসেপটিক(Antiseptic) উপাদান স্ট্রেচ মার্কস-এর কারণে হওয়া স্কিন ড্যামেজ ঠিক করতে হেল্প করে।

ডিমের সাদা অংশঃ
ডিমের ন্যাচারাল প্রোটিন ড্যামেজ স্কিন ময়েশ্চার্‌ড করে স্ট্রেচ মার্কস(Stretch marks) হালকা করে। ডিমের সাদা অংশ ভালোভাবে বিট করে নাও এবং একটি সফ্‌ট ব্রাশ দিয়ে স্কিনে অ্যাপ্লাই করো। শুকিয়ে যাওয়ার পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে স্কিনে অলিভ অয়েল(Olive oil) ম্যাসাজ করে নাও। প্রতি উইকে ১-২ দিন অ্যাপ্লাই করলে স্ট্রেচ মার্কস অনেকটাই কমে যাবে।

চিনিঃ
ডেড সেল এক্সফোলিয়েট করতে রেগুলার স্কিন স্ক্রাব করতে পারো। চিনি ও লেবুর রস(Lemon juice) ভালোমতো মিক্স করে স্ক্রাব বানিয়ে নাও এবং প্রতি উইকে ১ দিন গোসলের আগে স্ট্রেচ মার্কস-এর উপর খুবই হালকা ভাবে ম্যাসাজ করো।

আলু পেস্টঃ
আলু ভালোভাবে ব্লেন্ড করে পেস্ট বানিয়ে নাও। এবার স্ট্রেচ মার্কস-এর উপর অ্যাপ্লাই করো এবং শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলো। আলুর ভিটামিন ও মিনারেল স্ট্রেচ মার্কস হালকা করতে খুবই হেল্পফুল। ট্রাই করো প্রতি উইকে অন্তত ২ দিন আলু পেস্ট স্ট্রেচ মার্কস-এর উপরঅ্যাপ্লাইকরতে।

আমি জানি, তুমি যত দ্রুত পসিবল তোমার স্ট্রেচ মার্কস(Stretch marks) রিমুভ করতে চাও। কিন্তু স্ট্রেচ মার্কস এক দিন বা দুই দিনেই চলে যাবে না! একটু ধৈর্য নিয়ে রেগুলার উপরের নিয়মগুলো ফলো করো, দেখবে স্ট্রেচ মার্কস অনেকটাই কমে গেছে।

Post a Comment

0 Comments