HOT

6/recent/ticker-posts

মাত্র ৭ দিনে লি'ঙ্গ বড় করার উপায় Health Life Line

👉 See More/আরো পড়ুন

লিঙ্গ বড় করার কিছু উপায় সর্ম্পকে আজকে আপনাদের সাথে কথা বলব। আমাদের দেশের অনেক মানুষ আছেন যারা তাদের লিঙ্গ(penis) বড় করার বেশ কিছু টেকনিক জানার চেষ্টা করে। কিন্তু সত্যি কথা বলতে তেমন কোনো ভালো মানের গাইড লাইন নেই। আমাদের দেশে অনেক হারবাল বা হোমিপ্যাথিক চিকিৎসা করানোর জন্য চেষ্টা করেন কিন্তু তেমন কোনো ফলাফল আসলে সেখান থেকে আশা করা খুব একটা সমীচীন নয়।লিঙ্গ বড় করার উপায়

এগুলো মূলত অনেক সময়ই কিংবা বলা যেতে পারে বেশিরভাগ সময়ই ভুলভাল চিকিৎসা দিয়ে থাকে। সত্যি কথা বলতে লিঙ্গ(penis) বড় হবে নাকি ছোট হবে সেটি মূলত নির্ভর করে আপনার লিঙ্গের মধ্যে রক্তচাপের পরিমাণের উপর।

আপনার লিঙ্গে যদি রক্তচাপের পরিমাণ বেশ ভালো থাকে, তাহলে স্বাভাবিক ভাবেই আপনার লিঙ্গ(penis) অধিকতর মোটা ও বড় হবে। কিন্তু লিঙ্গে রক্তচাপের পরিমাণ কম হলে সাধারনত আমাদের মাংসপেশীগুলো শুকিয়ে যায়। ফলে আমাদের লিঙ্গও খুব একটা বড় হয় না।

মূলত সঠিক পদ্ধতিতে কিছু ব্যায়াম(Exercise) করানোর মাধ্যমে আমরা চাইলে আমাদের এই লিঙ্গকে আমরা বড় ও মোটাতাজা করতে পারি। সঠিক পদ্ধতির পরিবর্তে ভুল পদ্ধতি অবলম্বন করলে হিতে বিপরীত হতে পারে।

তাই অবশ্যই ব্যায়ামগুলো করানোর সময় আপনাদের সর্তক থাকতে হবে। এখানে যেভাবে বলা হয়েছে ঠিক সেভাবেই আপনাকে ব্যায়ামগুলোকে অবলম্বন করতে হবে।

শেকিংঃ
প্রথমে আপনার লিঙ্গটিকে গোড়ার দিকে দুই আঙ্গুলে ধরুন (শিথিল অবস্থায়)। এরপর সেটাকে আস্তে আস্তে ঝাঁকাতে শুরু করুন। গতি বাড়ান এভাবে একটানা ২০০-২৫০ বার ঝাঁকান মাঝে মাঝে আপনার ইরেকশন হতে পারে। ইরেকশন হলে লিঙ্গকে শিথিল হওয়ার জন্য কিছু সময় দিন।

তারপর আবার করুন এভাবে দিনে দুইবার করুন এটা করার সময় আপনার হস্তমৈথুনের ইচ্ছা জাগতে পারে। ইচ্ছাটাকে পাত্তা দিবেন না। এটা করার সময় যদি হস্তমৈথুন(Masturbation) করেন তাহলে ব্যায়াম(Exercise) করা আর না করা সমান কথা।

যদি ২০০-২৫০ বারের আগেই বীর্য বেরিয়ে যেতে চায় তাহলে থামুন। উত্তেজনা প্রশমিত হলে আবার করুন এটা করলে আপনার পুরুষাঙ্গে রক্ত(Blood) সঞ্চালন আশাতীত ভাবে বাড়বে। একটু কষ্ট করে হলেও এক্সারসাইজ চালু রাখুন বাদ দেবেন না।

জেল্কিংঃ
প্রথমে লিঙ্গকে পানিতে ধুয়ে নিন এবং মুছে ফেলুন। এরপর খানিকটা ক্রিম বা জেল জাতীয় পিচ্ছিল জিনিস, (তেল জাতীয় জিনিস হলেও হবে) জোগাড় করুন।

এটি লিঙ্গকে ভালভাবে মাখান (শিথিল অবস্থায়)। এবার বুড়ো আঙ্গুল এবং তর্জনীরসাহায্যে ”OK” সাইন এর মত করুন। এবার এই ”OK” সাইন দিয়ে পেনিসের গোড়া ধরুন (একটু জোরে চেপে ধরতে হবে)। এবার আস্তে আস্তে ভেতর থেকে বাইরের দিকে মর্দন করুন। জিনিসটা অনেকটাই হস্তমৈথুনের মতই।

কিন্তু খেয়াল রাখবেন এটা শুধু পেনিসের গোঁড়া থেকে অগ্রভাগের দিকে। উল্টা দিকে করবেন না। এভাবে ৩০-৪০ বার করুন। দিনে দুইবার। এটি করার সময় আপনি নিজেই টের পাবেন যে আপনার লিঙ্গমুণ্ডে রক্তের চাপ বাড়ছে।

মাঝে মাঝে আপনার ইরেকশন হতে পারে ইরেকশন হলে লিঙ্গকে শিথিল হওয়ার জন্য কিছু সময় দিন। এটা করার সময় আপনার হস্তমৈথুনের ইচ্ছা জাগতে পারে। ইচ্ছাটাকে পাত্তা দিবেননা।

যদি ৩০-৪০ বারের আগেই বীর্য বেরিয়ে যেতে চায় তাহলে থামুন। উত্তেজনা প্রশমিত হলে আবার করুন এটি করার সময় লিঙ্গমুণ্ডে সামান্য সাময়িক ব্যাথা(Pain) বোধ হতে পারে। এছাড়া আপনি দেখবেন লিঙ্গমুণ্ডকে লাল হয়ে ফুলে উঠতে। রক্তের চাপের কারনে এমন হয়।

স্ট্রেচিংঃ
প্রথমে লিঙ্গমুণ্ড পাঁচ আঙ্গুলে সামনে থেকে চেপে ধরুন। এবার এটাকে সামনের দিকে টেনে ধরুন। এমনভাবে ধরে রাখুন যাতে পিছলে না যায়। এভাবে ২০ সেকেন্ড ধরে রাখুন। ২০ সেকেন্ড পর ছেড়ে দিন। এভাবে একটানা ২০ বার করুন (দিনে ২ বার)। মাঝে মাঝে আপনার ইরেকশন হতে পারে৷ ইরেকশন হলে লিঙ্গকেকে শিথিল হওয়ার জন্য কিছু সময় দিন তারপর আবার করুন৷

এর ফলে ধীরে ধীরে আপনার পুরুষাঙ্গ(Penis) দীর্ঘতায় বাড়বে৷ যে তিনটি ব্যায়ামের কথা বলা হয়েছে সেগুলো একত্রে প্রতিদিন দুইবার করে করুন। একসাথে না করলে লাভের সম্ভাবনা কম। এক্সারসাইজের সময় হস্তমৈথুন করবেন না। হস্তমৈথুনকরলে ব্যায়াম(Exercise) করার কোন দরকারই নাই। কারন তাতে কোন লাভ হবেনা।

Post a Comment

0 Comments